images 22 1
মহাবিশ্ব

মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সি বা আকাশগঙ্গা ছায়াপথ

আকাশগঙ্গা একটি ছায়াপথ। সৌরজগতের কেন্দ্র সূর্য এই ছায়াপথের অংশ। অর্থাৎ আমরা থাকি এই ছায়াপথে। সূর্য এবং তার সৌরজগতের অবস্থান এই ছায়াপথের কেন্দ্র থেকে প্রায় ২৭০০০ আলোকবর্ষ দূরে ।আকাশগঙ্গা ছায়াপথের কালপুরুষ বাহুতে। এটি একটি দন্ডযুক্ত সর্পিলাকার ছায়াপথ, যা স্থানীয় ছায়াপথ সমষ্টির একটি সদস্য। আকাশগঙ্গার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একাধিক উপগ্রহ ছায়াপথ এবং নিকটস্থ ছায়াপথ অ্যান্ড্রোমিডাও এই সমষ্টির সদস্য। স্থানীয় সমষ্টি আবার কন্যা মহাছায়াপথস্তবকের অংশ । কন্যা ছায়াপথস্তবক আবার ল্যানিয়াকেয়া মহাছায়াপথস্তবকের মধ্যস্থ অনেকগুলি মহাছায়াপথস্তবকের একটি।

কতগুলো গ্রহ-উপগ্রহ ও সূর্যকে নিয়ে যেমন একটি নক্ষত্রব্যবস্থা বা সৌরজগৎ গঠিত হয়, তেমনি এরকম অসংখ্য নক্ষত্রব্যবস্থা নিয়ে গঠিত হয় একটি ছায়াপথ বা গ্যালাক্সি।সূর্য যেমন পৃথিবী ও অন্যান্য গ্রহের আবাসস্থল ঠিক তেমনি গ্যালাক্সিগুলো হল নক্ষত্রদের আবাসস্থল।গ্রহগুলো যেমন সূর্যকে ঘিরে অবিরাম পাক খাচ্ছে,নক্ষত্রগুলোও ছায়াপথে তাদের আপন কক্ষপথে অবিরাম ঘূর্ণায়মান।আকাশগঙ্গা বা মিল্কিওয়ে হল এই রকম একটি ছায়াপথ।আর আমাদের সূর্য হল এই ছায়াপথের একটি সদস্য নক্ষত্র।

আকাশগঙ্গা ছায়াপথ

আকাশগঙ্গার কেন্দ্র রেডিও তরঙ্গের একটি প্রবল উৎস এবং একটি অতিভারবিশিষ্ট কৃষ্ণগহ্বর, যার নাম Sagittarius A .

চাঁদহীন অন্ধকার রাতে মেঘমুক্ত আকাশের দিকে তাকালে(বিশেষ করে শরৎ কালে,কারন এ সময় রাতের আকাশ পরিস্কার থাকে) অসংখ্য তারার এক মনমুগ্ধকর সমাহার দেখা যায়।শহরের আকাশে ধুলাবালির পুরু স্তর থাকায় গ্রামে অথবা মফঃস্বলে গেলে ব্যপারটা ভাল করে বোঝা যায়।যাহোক,এরকম অন্ধকার রাতের তারাখচিত আকাশে লক্ষ করলে দেখা যাবে আকাশের মধ্য দিয়ে এক দিগন্ত থেকে আরেক দিগন্তে আলোর এক সুরু অস্পষ্ট কুয়াশার মত ধারা চলে গেছে। এটিই হল মিল্কিওয়ে বা আকাশগঙ্গা ছায়াপথ।

images 21

এই ছায়াপথটির আবার কতগুলো সুন্দর নাম আছে।যেমন -সুর গঙ্গা বা স্বর্গ গঙ্গা।গ্রিক পুরান মতে,দেবী জুনো যখন শিশু হারকিউলিক্স কে স্তন্য পান করাচ্ছিলেন তখন জুনোর বুক থেকে ছিটকে পরা দুধ থেকেই এই ধারার জন্ম।তাই এর নাম হয়েছে via lactea আর ইংরেজিতে বলে milky way।আমরা যে মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সিতে বাস করছি তার ব্যাস ৯০০০০ আলোকবর্ষ(আলো এক বৎসরে যে পরিমান পথ চলে তাকে আলোকবর্ষ বলে)।আলোর বেগ প্রতি সেকেন্ডে ৩০০০০০ কিঃ মিঃ।তাহলে বুঝতেই পারছেন কতটা বিশাল এই ছায়াপথ।আর এর কেন্দ্র থেকে আমাদের সূর্যের  দূরত্ব ৮.৫ কিলোপারসেক(৩.২৬ আলোকবর্ষ=১ পারসেক & ১০০০ পারসেক=১ কিলোপারসেক)।ছায়াপথটি sb শ্রেণির।এটিতে নক্ষত্রের সংখ্যা প্রায় ১০০বিলিয়ন।এর মোট দৃশ্যমান বস্তুর ভর প্রায় ২০০০০০০০০০০০ সৌরভরের সমান।যার মধ্যে ৮৭-৯০% হাইড্রোজেন ১০% হিলিয়াম,০-৩% ভারি মৌল।ছায়াপথটির আকার সর্পিল।মোটামুটি এই হল আমাদের মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সি বা আকাশগঙ্গা ছায়াপথ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *