ধুমকেতু কী?

ধুমকেতু কী
images 8

ধুমকেতু বা অকমেট মূলত ধুলিময় বরফগোলক, যা বরফ, পানি, কার্বন ডাইঅক্সাইড, অ্যামোনিয়া, মিথেন এবং ধুলিকণার সংমিশ্রণে সৃষ্ট। যখন আমাদের সূর্য নক্ষত্রের সৃষ্টি হয়েছিল তখন থেকেই এই পদার্থগুলোর অস্তিত্ব বিদ্যমান। ধুমকেতুগুলোর কেন্দ্র (নিউক্লিয়াস) বরফপূর্ণ। এদের কেন্দ্র বিভিন্ন প্রকার গ্যাস এবং ধুলিকণার মেঘ দিয়ে বেষ্টিত। এগুলোকে একত্রে বলা হয় ‘কমা’। ধুমকেতুর কেন্দ্র সূর্যের তাপে বাষ্পীভূত হতে হতে কমা’র সৃষ্টি করে।

ধুমকেতুগুলো সবসময় সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে ঘুরে, তবে যখন সূর্যের কাছাকাছি ভ্রমণ করে তখন সেগুলো সাধারণত দু’ভাবে বিকাশিত হয়। একটি হচ্ছে গ্যাস নিয়ে সোজা লেজ এবং অপরটি হচ্ছে ধুলিকণা নিয়ে বক্র লেজ। গ্যাসের এই লেজগুলো মূলত সোলার ওয়াইন্ড এর জন্য গঠিত হয়। কমা’র ধুলিকণা গুলো ম্যাগনেটিক ফিল্ডের জন্য নিজেদের মধ্যে কোনো পরিবর্তন করেনা কিন্তু সূর্যের তাপে এগুলো বাষ্পীভূত হয়ে যায়, যার ফলে ধুমকেতু গুলোর বাঁকা ধুলিকণাময় লেজ তৈরি হয়।

বেশিরভাগ ধুমকেতুর নিউক্লিয়াস (ধুমকেতুর কেন্দ্র) ৬ মাইল বা ১০ কি.মি. এর কম হয়ে থাকে। কোনো ধুমকেতুর বিস্তৃতি নির্ভর করে সেটি সূর্য থেকে কত দূরে অবস্থান করছে। যখন কোনো ধুমকেতু সূর্যের কাছাকাছি যায় তখন তার নিউক্লিয়াসে অবস্থিত বরফ বাষ্পীভূত হয়ে শুরু করে। আর নিউক্লিয়াসের বরফ বাষ্পীভূত হওয়ার কারণে কমা’র বিস্তৃতি বেড়ে গিয়ে হয়ে যায় ৫০,০০০ মাইল বা প্রায় ৮০,০০০কি.মি.। এর ফলে ধুমকেতুর লেজ গুলোর বিস্তৃতি বেড়ে গিয়ে প্রায় ৬০০,০০০ মাইল বা প্রায় ১মিলিয়ন কি.মি. হয়ে যেতে পারে।

images 9

অধিকাংশ ধূমকেতুর কক্ষপথের ক্ষুদ্র অংশ সূর্যের কাছাকাছি (অনুসূর) এবং বাকি অংশ বা প্রায় পুরোটা সময় সৌরজগেতের দূরবর্তী অঞ্চলে (অপসূর) থাকে। এজন্য কিছু ধূমকেতুকে কক্ষপথের পর্যায়কালের ওপর ভিত্তি করে সাধারণত দুইভাগে ভাগ করা হয় :

১. স্বল্পকালীন ধুমকেতু

২. দীর্ঘকালীন ধুমকেতু

স্বল্পকালীন ধুমকেতুর পর্যায়কাল ২০০ বছরের কম হয়ে থাকে এবং এগুলো গ্রহগুলোর মত একটি উপবৃত্তাকার তলে ঘোরে। আর এসব ধুমকেতুর অপসূর দূরত্ব হয় বৃহস্পতির কক্ষপথের বাইরে। দীর্ঘকালীন ধুমকেতুর পর্যায়কাল ২০০ বছর থেকে কয়েক লক্ষ বছর হতে পারে এবং এদের কক্ষপথের উৎকেন্দ্রিকতা অনেক বেশি। এসব ধুমকেতু কোনও বড় গ্রহের কাছাকাছি এলে সৌরজগত থেকে বিক্ষিপ্ত হতে পারে এবং তখন এদের পর্যায়কাল থাকে না । 

Leave a Reply

Your email address will not be published.