উল্কা কী?

উল্কা

উল্কা বা meteorite হলো মহাকাশে পরিভ্রমণরত পাথর বা ধাতু দ্বারা গঠিত একধরনের মহাজাগতিক বস্তু, যা এর পরিভ্রমণকালে বায়ুমণ্ডলের সংস্পর্শে এলে জ্বলে উঠে। রাতের মেঘমুক্ত আকাশে প্রায়ই আমরা নক্ষত্রের ছুটাছুটি দেখতে পায়, যাকে আমরা নক্ষত্র পতন বা তারা খসা বলি। তবে অনেক সময় এগুলো প্রচণ্ড বেগে অভিকর্ষজ ত্বরণের ফলে আকাশ থেকে পৃথিবীর দিকে ছুটে আস্তে থাকে। পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের সংস্পর্শে আসার সাথে সাথেই বায়ুর সাথে ঘর্ষণের ফলে এরা জ্বলে উঠে । এই জ্বলন্ত বস্তুই উল্কা বা meteorite নামে পরিচিত। 

উল্কা বিভিন্ন ধরনের হতে পারে। কখনো এরা ছোট কিংবা মাঝারি আবার কখনো কখনো বৃহদাকারও হয়ে থাকে। তবে আমরা যে উল্কা আকাশে ছুটাছুটি করতে দেখতে পায় সেগুলো একদমই ক্ষুদ্র উল্কা। পৃথিবীর অভিকর্ষজ ত্বরণের টানে বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের আগেই এদের অধিকাংশ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আর যে উল্কাগুলো পৃথিবীতে প্রবেশ করে সেগুলো মাঝারি সাইজের হয়ে থাকে তবে অধিকাংশই সমুদ্রের পানিতে গিয়ে পতিত হয়। 

মহাকাশের ঘুরে বেড়ানো বেশিরভাগ উল্কাই কোনো না কোনো গ্রহাণু বা ধূমকেতুর অংশবিশেষ। তবে কিছু কিছু উল্কা বিভিন্ন মহাজাগতিক বস্তুর সংঘর্ষের ফলে সৃষ্ট ধ্বংসাবশেষ। যখন কোন উল্কা পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে প্রবেশ করে তখন এর গতিবেগ প্রতি সেকেন্ডে ২০ কিমি বৃদ্ধিপ্রাপ্ত হয় (৭২,০০০ কিমি/ঘন্টা; ৪৫,০০০ মাইল/ঘন্টা।)। এসময়ে এ্যারোডাইনামিক্স তাপের কারনে উজ্জ্বল আলোক ছটার সৃষ্টি হয়। এই বাহ্যমূর্তীর কারনে একে তারা খসা (Shooting Star) বলে। কিছু কিছু উল্কা একই উৎস হতে উৎপন্ন হয়ে বিভিন্ন ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে ভেঙে প্রজ্জ্বলিত হয় যাকে উল্কা বৃষ্টি বলা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.